বাড়ির ছাদে আফরোজা আক্তারের সফল চাষাবাদ

বকুল হাসান খান # নগরের দূষণীয় আবহাওয়ায়  সবাই চায় একটু সবুজ সতেজতা। সে লক্ষ্যে এখন বাড়ির ছাদে সবাই বিভিন্ন ফুলের চারা টবে চাষ করে থাকে। বিষ ও ফরমালিনযুক্ত সবজি ও ফলমূলের যুগে যদি বলি বাড়ির ছাদে বিষমুক্ত সবজিও ফলমূল চাষ করে কেউ সফলতার মুখ দেখেছেন। তখন একটু ব্যতিক্রমই বলা চলে। তেমনি  ব্যতিক্রমী এক গল্পের নাম ঢাকার বাইতুল আমান হাউজিং ১৪ নং রোডের ৬৬১ নং/এ/বি নং বাড়িতে বসবাসকারী আফরোজা আক্তার।  যদিও বাড়ির ছাদে সবুজ বিপ্লবের ইতিহাস অনেক পুরোনো।Alamgir-99

মেসোপটেমিয়ায় রাজা নেবুচাঁদনেজার স্ত্রীর জন্য ইউফ্রেটিস নদীর তীরে প্রথম ব্যাবিলনের ঝুলন্ত উদ্যান তৈরি করেন। সেই থেকেই ছাদে বাগানের প্রথম ধারণা এসেছিল। এরপর প্রায় তিন হাজার বছর পেরিয়ে গেছে। এখন মানুষ নিজ বাড়ি বা দালানের কার্নিসে, বারান্দায় কিংবা ছাদে বাগান করছেন। যার ফলে ছাদ গড়ে উঠছে সবুজ রুপে।

যশোর শহরের বকচরে মাত্র আড়াই শতক জমির ওপর নির্মিত ভবনের ছাদে শুরু সৌখিন গৃহবধূ আফরোজা আক্তার সবুজ বিপ্লব। তিনি নানা প্রজাতির ফল ও সবজি গাছ লাগিয়ে গড়ে তুলেছেন একটি সবজি উদ্যান। তার এই উদ্যোগে অনেকেই উৎসাহিত হয়ে ছাদে চাষ শুরু করে স্বাস্থ্যসম্মত ফল ও সবজি উৎপাদন করছেন।

 আফরোজা আক্তার ছোট বেলা থেকেই কৃষি কাজের প্রতি আগ্রহ ছিল বেশি। কিন্তু শহুরে জীবনে বেড়ে ওঠা ফারহানার সে স্বপ্ন পূরণ হয়নি কোনোদিন।  শেষ পর্যন্ত তিনি সাধ্যের মধ্যে থাকা বাড়ির ছাদেই নিবিড় পর্যবেক্ষণে গড়ে তোলেন সবজি ও ফলের বাগান।

আম, লিচু, জামরুল, পেঁপে, পেয়ারা, ছফেদা, আমড়া, কমলা, বেদানা থেকে শুরু করে হরেক রকমের দেশী-বিদেশী ফল-সবজি আর ফুলের বাগান রয়েছে তার ছাদের সবুজ বাগানে। সম্পূর্ণ বিষমুক্ত স্বাস্থ্যসম্মত এসব ফল ও সবজি উৎপাদনে আফরোজা আক্তার রীতিমত সবুজ বিপ্লব ঘটিয়েছে।

গৃহবধূর দাবি ফরমালিন রোধে নগর জীবনে প্রতিটি মানুষ এভাবে বাড়ির ছাদে সবুজ বাগান তৈরি করে নিরাপদ ফল ও সবজি উৎপাদন করতে পারেন। এর মাধ্যমে পরিবেশের ভারসাম্য যেমন রক্ষা হবে তেমনি প্রতিটি মানুষকে কৃষির প্রতি আগ্রহী করবে।

তার মতে শহরে অপরিকল্পিতভাবে গড়ে ওঠা বড় বড় ভবনের কারণে সবুজ গাছগাছালি তেমন একটা দেখা যায় না। এ অবস্থায় মানুষ  তাদের বাড়ির ছাদ ফেলে না রেখে যদি এভাবে সবজি ও ফলমূলের গাছ লাগায়, তাহলে একদিকে পরিবেশ যেমন রক্ষা হবে তেমনি ফরমালিনযুক্ত সবজি ও ফল থেকে রক্ষা পাওয়া সম্ভব। আফরোজা আক্তার এই সবুজ বিপ্লবে তার পরিবারের সদস্যরাও বেজায় খুশি। অবসর সময়ে তার পরিবারের সদস্যরা বাগান পরিচর্যার মাধ্যমে সময় কাটান।

  কৃষি বিভাগের পক্ষ থেকে কারিগরী ও প্রযুক্তিগত সহায়তা দিয়ে আসছে। তিনি বলেন, দেশের নিরাপদ খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে আফরোজা আক্তার এই সবুজ বিপ্লব কৃষি উন্নয়নে নতুন দৃষ্টান্ত। তিনি তার এ পথ সকলকে অনুসরণ করার জন্য এগিয়ে আসার পরামর্শ দেন।

প্রসঙ্গত, বাংলাদেশের শহর ও মফস্বলের বেশিরভাগ ছাদ অব্যবহৃত অবস্থায় পড়ে থাকে। এসব অব্যবহৃত ছাদে খুব সহজেই পরিকল্পিতভাবে ফুল, ফল ও শাক-সবজির পারিবারিক বাগান তৈরি করা সম্ভব। এর মাধ্যমে পরিবারের ফুল, ফল ও শাক-সবজির চাহিদা মেটানোর পাশাপাশি দেশের অর্থনীতিতে অবদান রাখারও সুযোগ রয়েছে।

 এই রিপোর্ট পড়েছেন  136 - জন
 রিপোর্ট »রবিবার, ১০ জুন , ২০১৮. সময়-২:৫০ pm | বাংলা- 27 Joishtho 1425
WEBSBD.NET
রিপোর্ট শেয়ার করুন  »
Share on Facebook!Digg this!Add to del.icio.us!Stumble this!Add to Techorati!Seed Newsvine!Reddit!

Leave a Reply

5 + 2 =  

Chief Editor : Ln. Advocate Ferdaus Ahmed Asief  » E-mail :japaeditor82@gmail.com, abbokul@yahoo.com  » Mobile: 01765-375401, 01716-186230, Copyright © 2011 » All rights reserved.
☼ Provided By  websbd.net  » System  Designed by HELAL .
GO TOP
☼ Provided By  websbd.net  » System   Designed by HELAL .